Last update
Loading...

‘পাকিজা’খ্যাত অভিনেত্রীর দুর্বিষহ জীবন

মায়ের চাইতে পৃথিবীতে আপন কেউ নেই। কিন্তু মাঝেমধ্যে সন্তানদের কাছ থেকে এই বাস্তবতার মিল খুঁজে পাওয়া যায় না। তেমনই একটি ঘটনা ঘটলো এক ভারতীয় অভিনেত্রীর জীবনে। এক সময়ের নিয়মিত অভিনেত্রী গীতা কাপুর। তাকে হাসপাতালে রেখে পালিয়ে গেছেন তারই ছেলে। বর্তমানে হাসপাতালেই দুর্বিষহ দিন কাটাচ্ছেন ওই অভিনেত্রী। হৃদয়বিদারক এ ঘটনা নিজ মুখেই সংবাদমাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন গীতা। রক্তচাপ কমে যাওয়ায় ২১শে এপ্রিল গীতাকে তার ছেলে ভারতের গোরেগাওয়ের এসআরভি হাসপাতালে ভর্তি করান। রাজা তার মা গীতাকে এটিএম বুথ থেকে টাকা তুলবেন বলে বের হন। কিন্তু আর ফেরেননি। মাকে এখানে ফেলে রেখেই নিরুদ্দেশ হয়ে যান। সেই তখন থেকে হাসপাতালেই রয়েছেন গীতা। পরে অনেকভাবে রাজার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন হাসপতাল কর্তৃপক্ষ। এরপর পুলিশে জানান বিষয়টি। তারপরেই খবরটি জানাজানি হয়ে যায়। একটি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে গীতা জানান, বেশ কিছু ছবিতে কাজ করেছি আমি। ‘পাকিজা’র মতো বিখ্যাত ছবিতেও কাজ করা হয়েছে আমার। কিন্তু পরিবার থেকে অবহেলা ছাড়া কিছুই পাইনি। ছেলে রাজা আমাকে রোজই মারধর করতো। কয়েকদিন পর পর খাবার দিতো। ঘরের মধ্যে আটকেও রাখতে। আমি বৃদ্ধাশ্রমে যেতে চাইনি। সে কারণেই পরিকল্পনা করে আমাকে হাসপাতালে ভর্তি করায় সে।

0 comments:

Post a Comment