Last update
Loading...

ইতিহাস গড়ে বিদায় মিসবাহ-ইউনুসের

৫৯ বছরের ব্যর্থতার বলয় ভেঙে ক্যারিবীয় মাটিতে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে পাকিস্তান। পাক বোলার ইয়াসির শাহর দুর্দান্ত বোলিংয়ে ডোমিনিকা টেস্টে নাটকীয় জয় পেয়েছে মিসবাহ-উল-হকের দল। তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের শেষ ম্যাচটি উভয় দলের জন্য ছিল গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে ম্যাচের প্রথম দিন বৃষ্টিতে ভেসে গেলে খেলা অনেকটাই ড্রয়ের দিকে এগুচ্ছিল। এ অবস্থায় চতুর্থ দিনে উভয় দলের বোলারদের কল্যাণে শেষ দিনটি হয়ে উঠে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর দায়িত্বশীল বোলিংয়ে নিজেদের কাজটি ঠিক মতোই করেন বোলাররা। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১০১ রানে হারিয়ে মিসবাহ-উল-হক ও ইউনুস খানকে দারুণ এক উপহার দেন সতীর্থরা। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইতিহাস ভিন্ন হতে পারতো। মাত্র এক ওভার বাকি থাকতে ২০২ রানে অলআউট হয়ে ম্যাচটি ড্র করতে ব্যর্থ হয় ক্যারিবীয়রা। ড্র করতে পারলে ক্যারিবীয় মাটি মিসবাহ-ইউনুসদের কাছে অপরাজেয়ই থেকে যেত। জয়ের জন্য রোববার তৃতীয় ও শেষ টেস্টের পঞ্চম দিনে পাকিস্তানের দরকার ছিল ৯ উইকেট, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ২৯৭ রান। সিরিজে ইয়াসিরের তৃতীয় পাঁচ উইকেটে সেই লক্ষ্যে পৌঁছায় পাকিস্তান। তবে শেষ দিন বীরোচিত ইনিংসের কল্যাণে শেষ পর্যন্ত ম্যাচ জমিয়ে রাখেন ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান রোস্টন চেইস। চেইসের হার না মানা ২৩৯ বলে ১০১ রান ম্যাচ শেষে যে কেবল তার আক্ষেপই বাড়িয়েছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। খেলার শেষের দিকে আগের ওভারে দারুণ বোলিংয়ে মোহাম্মদ আমির নিশ্চিত করেন পরের ওভারে স্ট্রাইকে থাকবেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। ইয়াসিরের সেই ওভারের চার নম্বর বলে আম্পায়ার আউট দিলেও রিভিউ নিয়ে বাঁচেন গ্যাব্রিয়েল। পরের বলে সুযোগ এসেছিল সিঙ্গেল নেয়ার, শেষ ওভারটি নিজে খেলে দিবেন ভেবেই হয়তো রান নেননি রোস্টন চেইস। লেগ স্পিনারের শেষ বলটায় পাকিস্তানের সব ফিল্ডার ঘিরে ধরে গ্যাব্রিয়েলকে। চাপ কাটাতেই হয়তো সজোরো হাঁকাতে গিয়ে টেনে আনেন স্টাম্পে। বোল্ড স্বাগতিকদের ১১ নম্বর ব্যাটসম্যান। হতভম্ব হয়ে যান গ্যাব্রিয়েল, বিশ্বাস হচ্ছিল না চেইসের। সেই রানটা না নেয়ার জন্যই হয়তো আক্ষেপ করছিলেন। ম্যাচ বাঁচানোর খুব কাছে গিয়ে হারতে হয় ক্যারিবীয়দের। আর শেষ পর্যন্ত সতীর্থদের কাঁধে চড়ে শেষবারের মতো মাঠ ছাড়েন ইউনুস-মিসবাহ। ৯২ রানে ৫ উইকেট নিয়ে পাকিস্তানের সেরা বোলার হন ইয়াসির। তরুণ পেসার হাসান ৩ উইকেট নেন ৩৩ রানে।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ৩৭৬
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংস: ২৪৭
পাকিস্তান ২য় ইনিংস: ১৭৪/৮ ইনিংস ঘোষণা
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২য় ইনিংস: ৯৬ ওভারে ২০২
ফল: পাকিস্তান ১০১ রানে জয়ী
সিরিজ: ৩ ম্যাচের সিরিজে ২-১ ব্যবধানে জয়ী পাকিস্তান
ম্যান অব দ্য ম্যাচ: রোস্টন চেইস
ম্যান অব দ্য সিরিজ: ইয়াসির শাহ

0 comments:

Post a Comment