Last update
Loading...

সাঙ্গাকারার দৃষ্টিতে বাংলাদেশ ‘ডার্ক হর্স’

সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সে ছন্দে থাকা বাংলাদেশ দলের প্রশংসায় পঞ্চমুখ শ্রীলংকান গ্রেট কুমার সাঙ্গাকারা। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রুফিতে টাইগারদের উজ্জ্বল পারফরম্যান্সই দেখছেন এই টুর্নামেন্টের শুভেচ্ছাদূত। বাংলাদেশকে ‘ডার্ক হর্স’ তকমাও দিয়েছেন সাবেক লংকান অধিনায়ক। ২০১৫ সালের ৩০ সেপ্টেম্বরের ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ আটে থেকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রুফিতে জায়গা করে নেয় টাইগাররা। দু’বছর আগে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার পর থেকেই বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ ক্রিকেটের উত্থান। ধারাবাহিক সাফল্যে নিজেদের নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। সবশেষে আয়ারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজের শেষ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে র‌্যাংকিংয়ের ছয় নম্বরে ওঠার গৌরব অর্জন করে বাংলাদেশ। সব মিলিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রুফিতে সমর্থকদের প্রত্যাশাও বেড়ে গেছে বহুগুণ। আগামীকাল উদ্বোধনী ম্যাচেই স্বাগতিক ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে মাশরাফির দল। ‘এ’ গ্রুপের বাকি দুই প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড। তার আগে লংকান ব্যাটিং জিনিয়াস সাঙ্গাকারার প্রশংসায় সিক্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট।
কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের অধীনে বাংলাদেশ দ্রুত উন্নতি করেছে বলে জানিয়েছেন তিনি। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রুফিতে কেমন করবে বাংলাদেশ সেটিও আইসিসিতে লেখা একটি কলামে তুলে ধরেন সাঙ্গা। সাঙ্গাকারার অভিমত, ‘বাংলাদেশ আসল ডার্ক হর্স। তারা অনেক আশা ও প্রতিশ্রুতি নিয়ে টুর্নামেন্টে এসেছে। কোচ হাথুরুসিংহের অধীনে গত দু’বছরে দলের দ্রুত উন্নতি হয়েছে। তিনি সৌভাগ্যবান যে, সাফল্যের জন্য খুবই ক্ষুধার্ত একঝাঁক প্রতিভাবান খেলোয়াড় পেয়েছেন।’ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ টুর্নামেন্টে অন্যান্য টিমের জন্য বাংলাদেশকে হুমকি হিসেবে দেখছেন সাঙ্গাকারা, ‘বর্তমানে বাংলাদেশ দলের আত্মবিশ্বাস ও ম্যাচ সচেতনতা বাড়ছে। কীভাবে ম্যাচ জিততে হয় শিখছে। এটা খুবই বিপজ্জনক প্রতিপক্ষ হিসেবে পরিণত করেছে। আমি জানি না তারা শেষ পর্যন্ত ফাইনালে যেতে পারবে কিনা, কিন্তু অন্য টিমগুলোর জন্য যে বাধা হয়ে দাঁড়াবে এ ব্যাপারে আমি নিশ্চিত।’ ওয়েবসাইট।

0 comments:

Post a Comment