Last update
Loading...

২১দিনেও বাড়ি ফিরেনি ফাতেমা

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলার গোমতি এলাকার বাসিন্দা ফরিদ উদ্দিনের কন্যা ফাতেমা আক্তার (১৫) চিকিৎসার জন্য বাড়ি থেকে খাগড়াছড়ির উদ্দেশ্যে গিয়ে ২১দিনেও ফিরে আসেনি। ফাতেমাকে দীর্ঘদিন না পেয়ে পরিবারে চলছে শোকের মাতম। ফাতেমাকে হারিয়ে দিশেহারা মা মাটিরাঙ্গা থানায় সাধারণ ডয়েরী করে। পরিবার ও এলাকাবাসীর সুত্রে জানা যায়, জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার গোমতি এলাকার বাসিন্দা ফরিদ উদ্দিনের কন্যা ফাতেমা আক্তার (১৫) পাশ্ববর্তি মর্জিনা বেগমের বাড়িতে তারঁ নাতীকে দেখাশুনার কাজের জন্য ছয়-সাত মাস থেকে বসবাস করে আসছে। গত ২৩এপ্রিল ফাতেমাকে ডাক্তার দেখাবে বলে চিকিৎসার জন্য বাড়ি থেকে খাগড়াছড়ির উদ্দেশ্যে মর্জিনা বেগম সাথে করে নিয়ে আসে। আসার পর থেকে ফাতেমা আর বাসায় ফিরে আসেনি। পরে তার মা পারুল বেগম গত ১লা মে মাটিরাঙ্গা থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন।
(জিডিনং-২৪)। নিখোঁজ ফাতেমার মা পারুল আক্তার ও বাবা ফরিদ উদ্দিন জানান, প্রতিবেশি মর্জিনা বেগমের বাসায় তারঁ নাতীকে শেখাশুনার জন্য কাজ করতো এবং তাদের বাড়িতেই থাকতো। গত ২৩ এপ্রিল খাগড়াছড়ি শালবাগানে ফাতেমার দুলা ভাইয়ের বাসায় রেখে চিকিৎসা করাবে বলে মর্জিনা সাথে করে নিয়ে যায়। সারা দিন মেয়ের সন্ধান না পেয়ে বিকালে তারঁ দুলাভাইয়ের বাসায় ফোন করে খবর নিলে জানতে পারি সেখানে তারাঁ যায় নি। পরে চারদিকে খোজাঁ খোজি করেও কোন সন্ধান পাইনি। প্রতিবেশি মর্জিনার ফোনে বারবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি। উপায়ান্তর না দেখে মাটিরাঙ্গা থানায় জিডি করি। কিন্তু অদ্যবদি পর্যন্ত মেয়ের সন্ধান পাওয়া যায়নি। মাটিারাঙ্গা থানার পুলিশ ইনচার্জ মোঃ শাহাদাত হোসেন টিটু জানান, ফাতেমা নিখোজেঁর বিষয়ে জেনেছি। বিষয়টি পুলিশ খুব গুরুত্বের সাথে দেখছি। অতি সত্বর তাকেঁ খুজেঁ বের করা হবে। এক্ষেত্রে কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।

0 comments:

Post a Comment