Last update
Loading...

ঝিনাইদহে দুটি বাড়ি ঘিরে রেখেছে র‌্যাব

ঝিনাইদহের সদর উপজেলায় 'জঙ্গি আস্তানা' সন্দেহে দু'টি বাড়ি ঘিরে রেখেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-র‌্যাব। মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার পোড়াহাটি ধানবাড়িয়া চুয়াডাঙ্গা গ্রামের বাড়ি দু'টি র‌্যাব ঘিরে রাখে। বাড়ি দু'টি শহর থেকে ৫ কিলোমিটার এবং র‌্যাব ক্যাম্পের ৫০০ গজের মধ্যে অবস্থিত। এর মধ্যে একটি বাড়ির মালিক ঝিনাইদহের মহেশপুরের জঙ্গি আস্তানায় নিহত জঙ্গি তুহিনের। অন্যটির মালিক তার চাচাতো ভাই প্রান্ত। বেলা ১১টার পরে র‌্যাবের খুলনা অফিস থেকে নিজস্ব বোমা ডিজপোজাল ইউনিটের ৪ সদস্য ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছেছে। তারা  বেলা ১১ টা ৪০ মিনিটে ঘেরাও করে রাখা বাড়ির পাশে আব্দুল ওহাবের বাশবাগান থেকে দুটি সুইসাইডাল ভেস্ট উদ্ধার করে। ঝিনাইদহ র‌্যাব ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর মুনির আহমেদ যুগান্তরকে জানান, বাড়ি দু'টির ওপর আগে থেকেই নজর রাখা হচ্ছিল। সেখানে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক আছে নিশ্চিত হওয়ার পর মঙ্গলবার ভোরে ঘিরে রাখা হয়। এরপর সকাল ৮টায় সেখানে অভিযান শুরু করে র‌্যাব।
তিনি আরও জানান, প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে, ওই বাড়ি দু'টিতে মাটির নিচে পুঁতে রাখা বিস্ফোরক রয়েছে। তিনি আরও জানান, বাড়ি দু'টিতে জঙ্গি আছে কি না তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। দুপুর ১২টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ, সদর থানার ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকারসহ গোয়েন্দা বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। স্থানীয়রা জানায়, র‌্যাব ছাড়াও বাড়ি ঘিরে বিপুল সংখ্যক পুলিশ অবস্থান নিয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা বাড়ির আশপাশে কাউকে ভিড়তে দিচ্ছে না। এর আগে গত ৭ মে ঝিনাইদহের সদর ও মহেশপুর উপজেলায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে দু'টি বাড়িতে অভিযান চালায় আইনশৃংখলা বাহিনী। এর মধ্যে মহেশপুরের বাড়িটিতে অভিযানে তুহিন ও আব্দুল্লাহ নামে দুই জঙ্গি নিহত হয়। আর সদর উপজেলার বাড়ি থেকে বিস্ফোরক ও বোমা উদ্ধার করা হয়। এছাড়া গত ২১ এপ্রিল ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পোড়াহাটি গ্রামের ঠনঠনিপাড়ায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি বাড়ি ঘিরে রেখে অভিযান চালায় আইনশৃংখলা বাহিনী। এতে হতাহতের কোনো ঘটনা না ঘটলেও ওই বাড়ি থেকে ২০ ড্রাম রাসায়নিক দ্রব্য, বিপুল পরিমাণ ইলেকট্রিক ডিভাইস, বোমা তৈরির সরঞ্জাম এবং আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।

0 comments:

Post a Comment