Last update
Loading...

'তিন তালাক আইন দিয়ে নিষিদ্ধ করার বিষয় নয়'

'তিন তালাক মুসলমানদের ধর্মীয় বিশ্বাসের ব্যপার, এটা আইন দিয়ে নিষিদ্ধ করার বিষয় নয়।' ভারতের সুপ্রিমকোর্টে এভাবেই তিন তালাকের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেন দেশটির মুসলিম ল' বোর্ডের নেতারা। খবর এনডিটিভি'র। তারা বলেন, চৌদ্দশ' বছর ধরে এই রীতিই চলে আসছে। অযোধ্যায় রামের জন্ম হয়েছিল বলে হিন্দুরা যেমন বিশ্বাস করে, তিন তালাকেও মুসলমানদের একই রকম বিশ্বাস। কাজেই মুসলমানদের এই ধর্মীয় বিশ্বাস আইন দিয়ে নিষিদ্ধ করার বিষয় নয়। সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতিসহ শীর্ষ পাঁচ বিচারপতির গঠিত বেঞ্চে মঙ্গলবার 'তিন তালাক' মামলার শুনানিতে আইনজীবী হিসেবে সর্বভারতীয় মুসলিম ল'বোর্ডের পক্ষে এ যুক্তি তুলে ধরেন সাবেক আইনমন্ত্রী কাপিল শিবাল।
আদালতে তিনি আরও বলেন, তিন তালাক কোনো অমুসলিম বিধান নয়। মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর সময় থেকে এ বিধান ইসলাম ধর্মের অংশ হয়ে আছে। চাইলেই এটাকে তুলে দেয়া যায় না। এসময় প্রধান বিচারপতি জেএস শেখর প্রশ্ন করেন, ই-তালাক গ্রহণযোগ্য কি না? কারণ অনেক মুসলিম নারী অভিযোগ করেছেন, তাদেরকে হোয়াটসঅ্যাপ এবং ফেসবুকে তালাক দেয়া হয়েছে। জবাবে মুসলিম ল' বোর্ডের আইনজীবী বলেন, 'হ্যাঁ- সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও তালাক দেয়া যেতে পারে।' সুপ্রিমকোর্টে গত তিন দিন ধরে তিন তালাক মামলার শুনানি চলছে। মঙ্গলবার চতুর্থ দিনে আদালত জানিয়ে দেয়, এটা যদি ইসলামের বিধান হয়ে থাকে- তাহলে আদালত এতে নাক গলাতে চায় না। সুপ্রিমকোর্টের ওই বেঞ্চে আরও ছিলেন, বিচারপতি কুরিয়ান জোসেফ, বিচারপতি নরিমন, বিচারপতি উদয় উমেশ ললিত এবং আবদুল নাজির।

0 comments:

Post a Comment