Last update
Loading...

আফগানিস্তানে সর্ববৃহৎ মার্কিন বোমায় নিহত বেড়ে ৯২

আফগানিস্তানে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) ঘাঁটিতে যুক্তরাষ্ট্রের বোমা হামলায় নিহত বেড়ে ৯২ জনে দাঁড়িয়েছে। খবর এএফপি ও বিবিসির। মার্কিন সেনাবাহিনী বিমান থেকে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পরমাণু বোমার বাইরে সবচেয়ে বড় বোমাটি (এমওএবি) নিক্ষেপ করা হয়। পাকিস্তান সীমান্তবর্তী নানগড়হর প্রদেশে আইএসের টানেল কমপ্লেক্সে ৯ হাজার ৮শ’ কেজির এ বোমাটি ফেলা হয়। প্রাথমিকভাবে আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, বোমার আঘাতে ওই এলাকায় আইএসের ঘাঁটি ধ্বংস হয়ে গেছে। ৩৬ জন নিহত হলেও এতে কোনো বেসামরিক মানুষ হতাহত হয়নি। তবে শনিবার নানগড়হর প্রদেশের আচিন জেলার গভর্নর ইসমাইল শিনওয়ারি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানান, মার্কিন ওই বোমায় ৯২ জন দায়েশ (আইএস সদস্য) নিহত হয়েছে। তবে নানগড়হর প্রদেশের মুখপাত্র আতাউল্লাহ খোয়ানী এই সংখ্যা ৯০ বলে জানান। আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, বোমাটি মোমান্দ ভ্যালির একটি গ্রাম এলাকায় পড়েছে। ওই এলাকায় আইএসের আন্ডারগ্রাউন্ড নেটওয়ার্ক আছে।
বোমা হামলায় তাদের বিপুল পরিমাণ অস্ত্রও ধ্বংস হয়েছে। 'মাদার অফ অল বোম্বস' নামে পরিচিত জিবিইউ-৪৩/বি ম্যাসিভ অর্ডিন্যান্স এয়ার ব্লাস্ট বোম্ব (এমওএবি) ২০০৩ সালে প্রথম পরীক্ষামূলক বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। তবে এর আগে কোনো যুদ্ধে এটি ব্যবহার করা হয়নি। আফগানিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই এ হামলার নিন্দা জানিয়েছেন। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেছেন, ‘এটি সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ নয় বরং এর মাধ্যমে নতুন এবং বিপজ্জনক একটি অস্ত্র পরীক্ষার জন্য আফগানিস্তানকে খুবই অমানবিক এবং নির্মমভাবে ব্যবহার করা হয়েছে।’ নানগড়হর প্রদেশের আচিন জেলার গভর্নর ইসমাইল শিনওয়ারি বলেন, আফগান বিশেষ বাহিনী আমেরিকার বিমান বাহিনীর সহায়তায় ওই এলাকায় ১৩ দিন আগে আইএসবিরোধী অভিযান শুরু করেছে। তিনি বলেন, আইএসের ঘাঁটিগুলোতে নিয়মিতই বোমা ফেলা হয়। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাতের ওই বোমা হামলা ছিল খুবই শক্তিশালী।

0 comments:

Post a Comment