Last update
Loading...

সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক আইন বাতিলে পিছপা হবো না : প্রধান বিচারপতি

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্রকুমার সিনহা বলেছেন, জনগনের অধিকার ক্ষুণ্ন করে ভবিষ্যতে সংবিধানের কোনো বিধান বা অন্য কোনো আইন সংবিধানের মূলনীতির সঙ্গে সাংঘর্ষিক হলে তা বাতিল করতে সুপ্রিম কোর্ট পিছপা হবে না। রোববার দুপুরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ভূমি আইন ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও প্রথম ব্যাচের নবীন বরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধান বিচারপতি বলেন, বঙ্গবন্ধু যে সংবিধান প্রণয়ন করেছেন তাতে সুপ্রিম কোর্টকে জুডিশিয়াল রিভিউ করার ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। সংবিধানের এই ক্ষমতাবলেই সুপ্রিম কোর্ট পঞ্চম সংশোধনী, সপ্তম, অষ্টম ও ১৩তম সংশোধনী বাতিল করে দিয়েছে। এতে কোনো দ্বিমত নেই। তিনি বলেন, দুই-তৃতীয়াংশ সংসদ সদস্য ঐক্যমত হলেই সংবিধান সংশোধন করতে পারেন। শুধু দুই-তৃতীয়াংশ সংসদ সদস্যই নয়, পুরো সংসদ মিলে যদি সংবিধানকে বাতিল করে দেয় কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট ইচ্ছা করলে রেখে দিতে পারে। সুপ্রিম কোর্ট যদি দেখে সংবিধানের মূল ভিত্তি নষ্ট হয়ে গেছে, আইনের শাসনও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা খর্ব হয়েছে ও জনগণের অধিকারের ওপর আঘাত করেছে তাহলে সংসদের ওই সিদ্ধান্ত সুপ্রিম কোর্ট বেইআইনি ঘোষণা করতে পারে। ভূমি আইন বিষয়ে তিনি বলেন, অনেক আইনজীবী এবং বিচারপতিরাও ভূমি আইন বিষয়ে অজ্ঞ। ভুমি আইনের বিষয়ে তেমন গুরুত্ব দেওয়া হয় না। এ নিয়ে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নেই। উচ্চ আদালতেও এ সংক্রান্ত বিচারপতির সংখ্যা কম। ভূমি আইন ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের চেয়ারম্যান খ্রীষ্টিন রিচার্ডসন-এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান, ট্রেজারার অধ্যাপক মো. সেলিম ভূঁইয়া এবং আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সরকার আলী আককাস উপস্থিত ছিলেন।

0 comments:

Post a Comment