Last update
Loading...

মিশরে গির্জায় আহতদের রক্ত দিচ্ছেন মুসলিমরা

এখানেই পার্থক্য স্পষ্ট। আহতের জন্য ছুটে যাচ্ছেন মুসলিমরা। তাদের যন্ত্রণা ভাগ করে নিচ্ছেন না। অথচ মিশরে কপটিক খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের দুটি গির্জায় আত্মঘাতী বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস), যারা ইরাক ও সিরিয়ার বিস্তীর্ণ অঞ্চলের দখল নিয়ে ইসলামের খেলাফত ঘোষণা করেছে। রোববার আত্মঘাতী ওই বোমা হামলায় ৪৫ জন নিহত ও শতাধিক আহত হয়। এরপর মিশরে তিন মাসের জরুরি অবস্থা জারির ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি। মিশরের উত্তরের দুই শহর টান্তা ও আলেকজান্দ্রিয়ায় খ্রিস্টানরা গতকাল ধর্মীয় দিবস ‘পাম সানডে’ পালন করছিলেন। এ সময় ভয়াবহ ওই হামলার ঘটনা ঘটে।
হামলার পর থেকে আহতদের রক্ত দিতে মিশরের নারী ও পুরুষেরা টান্তা শহরের মসজিদে ছুটে আসেন। রক্তদাতাদের বেশিরভাগই ছিল মুসলিম। খবর আল অ্যারাবিয়ার। টান্তার বাসিন্দা মোহাম্মদ আহমাদ হাসান জানান, হামলায় আহতদের রক্তদানে মানুষকে আহ্বান জানানোর জন্য শহরের প্রধান মসজিদগুলো থেকে ঘোষণা দেয়া হয়। হাসপাতালগুলোতে রক্তের মজুদ শেষ হওয়ায় মানুষকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হচ্ছে। তিনি জানান, তাদের আহ্বানে বিপুলসংখ্যক মানুষ সাড়া দিয়েছেন। রক্তদাতাদের বেশিরভাগই ছিল মুসলিম। এরপর তাদের রক্ত নিয়ে শহরের হাসপাতালসহ ব্ল্যাড ব্যাংকগুলোতে কয়েকশ' রক্তের ব্যাগ সরবরাহ করা হয়েছে বলেও জানান মোহাম্মদ আহমাদ হাসান।

0 comments:

Post a Comment