Last update
Loading...

বালিয়াকান্দিতে ইউপি সদস্য আটক

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের বহরপুর-শেকাড়া-নীলকুঠি গ্রামীণ সড়কের বাহিরচর এলাকায় ড্রেজার দিয়ে মাটি কেটে বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে। ওই সড়কের প্রায় ৪শত ফুট ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটার ফলে ভেঙ্গে ১০টি গ্রামের মানুষের চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এ বিষয়ে দৈনিক সচিত্র সংবাদ প্রকাশের পর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এইচ এম রকিব হায়দার ক্ষতির পরিমান নিরুপন করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য উপজেলা প্রকৌশলীকে নির্দেশ দিয়েছেন। শনিবার বিকালে বালিয়াকান্দি থানা পুলিশ বহরপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য শুকুর আলী খানকে আটক করেছে। সরেজমিনে গিয়ে ও স্থানীয় জনসাধারনের সাথে কথা বলে জানাগেছে, উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের বাহিরচর এলাকা থেকে বহরপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শুকুর আলী খা, মনোয়ার খা, শহিদ খা বহরপুর-শেকাড়া-নীলকুঠি সড়কের পাশ থেকে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ ড্রেজার মেশিন বসিয়ে মাটি ও বালু কেটে বিক্রি করে আসছে। ১শত থেকে দেড়শত ফুট গভীর করে মাটি ও বালু কাটার ফলে সড়কের প্রায় ৪-৫শত ফুট ভেঙ্গে ওই বালুর গর্তে চলে গেছে। বালু উত্তোলন অব্যাহত থাকার কারণে সড়ক ছাড়াও পার্শ্ববর্তী লোকজনের জমিতেও ভাঙ্গণের সৃষ্টি হয়েছে। ওই সড়ক দিয়ে এখন পায়ে হেটে চলাচল করা দুষ্কর হয়ে পড়েছে। ভাঙ্গণের কারণে শেকাড়া, খালকুলা, বারাদী, বাহিরচর, দিঘিরচালা, নতুননগর, নারায়নপুর, হলুদবাড়ীয়া, দিয়ারা, তেঘড়ি সহ ১০টি গ্রামের মানুষের চলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে। এসব গ্রামের মানুষের চলাচল ছাড়াও উৎপাদিত ফসল বিক্রির জন্য হাট-বাজারে নিয়ে বিক্রি করতে ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। বালু ও মাটি কেটে ট্রাকে করে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার ফলে ধুলায় এলাকায় বসবাস করতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এতে এলাকার মানুষ বিভিন্ন রোগ ব্যাধিতে আক্রান্ত হচ্ছে।
এলাকাবাসী দ্রুত সড়কটি সংস্কারসহ দোষীদের শাস্তির দাবী জানিয়েছেন। বালু উত্তোলনকারী ও ১নং ইউপি সদস্য শুকুর আলী খা জানান, বালু ও মাটি আমি কাটছি না। এটা আমার ভাই-ভাস্তেরা কাটছে। সড়কটি বালু ও মাটি কাটার কারণে ভেঙ্গে যায়নি। এটি বৃষ্টির কারণে ভেঙ্গে গেছে। বহরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম জানান, সরকারী রাস্তা ড্রেজার দিয়ে কেটে মাটি বিক্রির বিষয়টি আমি ইতিপুর্বে নিষেধ করেছি। তা সত্বেও মাটি কেটে বিক্রি করেছে। মাটি কেটে বিক্রি করার বিষয়ে উপজেলা প্রশাসনকে অবগত করা হয়েছে। উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ জানান, বহরপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শুকুর আলী খা সরকারী রাস্তা কেটে মাটি বিক্রি করেছে। বিষয়টি আমি শুনেছি। খোজখবর নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এইচ এম রকিব হায়দার জানান, সড়কটি এলজিইডির হওয়ার কারণে সড়কের ক্ষতির পরিমান উল্লেখ পুর্বক সরেজমিন তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য উপজেলা প্রকৌশলীকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। বালিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ জাহিদুল ইসলাম,পিপিএম জানান, সরকারী রাস্তা কেটে বিক্রি করার অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের সদস্য শুকুর আলী খানকে আটক করা হয়েছে।

0 comments:

Post a Comment