Last update
Loading...

মহাকাশে বেড়াচ্ছে ভয়ঙ্কর ব্ল্যাক হোল, যাচ্ছে কোথায়

বিজ্ঞানের তথ্য আর কল্পবিজ্ঞানের গল্প এমনিতেই ব্ল্যাক হোলকে ভীতিপ্রদ করে রেখেছে। মিডিয়ায় ব্ল্যাক হোলের সংবাদ মানেই খানিকটা প্যানিক। কিন্তু এবারের খবর ছাপিয়ে গেছে আগেকার সব খবরকেই। নাসা-র সূত্রে জানা গেছে, এক ‘খ্যাপা’ ব্ল্যাক হোলের বৃত্তান্ত। নাসা-র মহাকাশ টেলিস্কোপ হাবল-এ ধরা পড়েছে গ্যালাক্সি ৩সি ১৮৬ থেকে এই কৃষ্ণগহ্বরটি ছিটকে বেরিয়া এসেছে। কেবল তা-ই নয়, সে প্রবল গতিবেগে মহাকাশে ঘুরে বেড়াতে শুরু করেছে। হাবল যা দেখেছে, তা আসলে একটি কোয়াসার বা অত্যুজ্জ্বল এক গ্যাস-বলয়, যা আসলে সুপারম্যাসিভ ব্ল্যাক হোলগুলিকে ঢেকে রাখে। নাসা-র বিজ্ঞানীরা মনে করছেন, এই কোয়াসারের আচ্ছাদনের তলায় দু’টি ব্ল্যাক হোল অবস্থান করছে এবং তারা পরস্পরের সঙ্গে মিশে গিয়ে মহাকর্ষের তরঙ্গ তৈরি করছে। দু’টি ব্ল্যাক হোল যদি মিশে যায়, তবে তারা ভয়ানক গতিবেগ সম্পন্ন হয়। প্রতি সেকেন্ডে প্রায় ১৩,০০০ মাইল সে অতিক্রম করতে পারে। অর্থাৎ, পৃথিবীপৃষ্ঠ থেকে চাঁদে পৌঁছতে তার সময় লাগার কথা তিন মিনিট। তবে এই সুপারম্যাসিভ ব্ল্যাক হোল ঠিক কোন দিকে ধাবিত হচ্ছে, মানে পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে কি না, সে বিষয়ে কিছু জানাননি বিশেষজ্ঞরা।

0 comments:

Post a Comment