Last update
Loading...

'আরও ৫ বছর বিনাভোটে ক্ষমতায় থাকতেই চুক্তি'

আরও পাঁচ বছর বিনাভোটে ক্ষমতায় থাকার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের কাছে ‘দেশ বিক্রি’ করে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। রোববার রাতে গুলশানে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবীদের এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি, কারো গোলামী করার জন্য নয়, কারো শৃঙ্খলে আবদ্ধ হওয়ার জন্য নয়। আমরা শৃঙ্খলিত হবো না, হতে দেবো না। রোববার রাত সাড়ে নয়টায় গুলশানের কার্যালয়ে সদ্য অনুষ্ঠিত সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে নির্বাচিত সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ও পূননির্বাচিত সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ বিজয়ী কর্মকর্তারা খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আসেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দ চেয়ারপারসনের হাতে পুস্পস্তবক তুলে দেন। ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদলের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচিত সভাপতি ও সম্পাদক বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে দলের ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য এজে মোহাম্মদ আলী, আইন বিষয়ক সম্পাদক সানাউল্লাহ মিয়া, ঢাকা বারের মাসুদ আহমেদ তালুকদার, খোরশেদ আলম, মহসিন মিয়া, বোরহান উদ্দিন প্রমূখ আইনজীবী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ২২ ও ২৩ মার্চে অনুষ্ঠিত সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বিএনপি ও জামায়াত সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল সভাপতি-সম্পাদকসহ নিরঙ্কুশ বিজয় অর্জন করে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার ‘নিরপেক্ষ’ নন অভিযোগ করে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, তিনি নিরপেক্ষ নন, তার কাছ থেকে নিরপেক্ষ নির্বাচন আশা করা যায় না। খালেদা জিয়া বলেন, এরশাদের সঙ্গে আতাঁত করে আওয়ামী লীগ ৮৬ সালে নির্বাচনে গিয়েছিলো। আমরা যাইনি। তারা(আওয়ামী লীগ) তখন সঙ্গি খুঁজে পায় না। একলা গেলে খারাপ দেখায়, সেজন্য জামায়াতে ইসলামকে নিয়ে নির্বাচনে গেলো। আর এখন জামায়াতে ইসলাম রাজাকার?

0 comments:

Post a Comment